জর্ডানে ড্রোন হামলায় ৩ মার্কিন সেনা নিহত


ওহাইও সংবাদ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২৯, ২০২৪, ১১:০৮ অপরাহ্ণ /
জর্ডানে ড্রোন হামলায় ৩ মার্কিন সেনা নিহত

ওহাইও সংবাদ : জর্ডানের একটি ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় তিন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ২৫ সেনা। রোববার সিরিয়ার সীমান্তের কাছে উত্তর-পূর্ব জর্ডানে এই হামলা হয় বলে জানায় মার্কিন সেনাবাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ড (সেন্টকম)। এদিকে ইরান সমর্থিত গোষ্ঠী এই হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। একই সঙ্গে এই ঘটনায় জড়িতদের চরম মূল্য দিতে হবে বলেও হুঁশিয়ার করেন তিনি। খবর বিবিসির

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সেন্টকম জানায়, সিরিয়ার সীমান্তবর্তী জর্ডানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে একটি ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা হলে সেনারা হতাহত হয়। এ ঘটনায় শোক ও দুঃখ প্রকাশের পাশাপাশি নিহত ও আহত সেনাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সহানুভূতি জানানো হয়।

অন্যদিকে হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘যদিও আমরা এখনও এই হামলার তথ্য সংগ্রহ করছি, আমরা জানি, এটি সিরিয়া এবং ইরাকে সক্রিয় ইরান-সমর্থিত গোষ্ঠীগুলো ঘটিয়েছে।’ তবে তিনি কোনো প্রমাণ উল্লেখ করেননি।

হামলার পেছনে কারা রয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে ইরানসমর্থিত ইরাকি গোষ্ঠীগুলো ইরাক ও সিরিয়ায় মার্কিন বাহিনীকে লক্ষ্যবস্তু করে ড্রোন হামলা চালিয়ে আসছে বিগত দিনগুলোতে।
এর আগে রোববার ইরানসমর্থিত সশস্ত্র দলগুলোর জোট ইরাক ইসলামিক রেজিস্ট্যান্স বলেছে, তারা সিরিয়ায় তিনটি মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে। ইরাকি দলগুলো বলে আসছে, মার্কিন সেনাদের ওপর তাদের হামলা মূলত গাজায় ইসরায়েলি গণহত্যার জবাব।

বাইডেন বলেন, ‘আমরা আগামীতে যে কোনো সময়ে, সুবিধাজনক পদ্ধতিতে হামলায় জড়িতদের জবাবদিহির আওতায় আনব। এতে কোনো সন্দেহ নেই।’

গত ১৭ অক্টোবর থেকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা হয়ে আসছে। রোববারের হামলার আগে আরও অন্তত দেড়শ হামলা হয়েছে। মূলত গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলার পর যুক্তরাষ্ট্র বিমানবাহী রণতরী, এয়ার ফোর্স ফাইটার স্কোয়াড্রন এবং অন্য সেনাদের মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানোর পর থেকেই হামলা হয়ে আসছে।

জর্ডানে মোতায়েন রয়েছে অন্তত ৩ হাজার মার্কিন সেনা। তাদের ঘাঁটি ইরাক, ইসরায়েল, সিরিয়া, ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীর অঞ্চল এবং সৌদি আরবের সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থিত।

হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এই প্রথম মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলায় সেনাদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। এর আগেও মধ্যপ্রাচ্যে বিভিন্ন জায়গায় মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা হয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী হতাহতের কোনো খবর দেয়নি। তবে সম্প্রতি ইরানের অস্ত্রবাহী জাহাজে অভিযান চালাতে গিয়ে নিখোঁজ দুই নেভিসিলকে ১০ দিন পর মৃত ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। তারা সাগরের ঢেউয়ে নিখোঁজ হয়েছিল। টানা ১০ দিন অনুসন্ধান চালিয়েও তাদের সন্ধান মেলেনি।