ভোট শুরুর অপেক্ষা


ওহাইও সংবাদ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ৬, ২০২৪, ৯:৪০ অপরাহ্ণ /
ভোট শুরুর অপেক্ষা

ওহাইও সংবাদ : কাজী হাবিবুল আউয়াল নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে নিজেদের ফাইনাল পরীক্ষা অংশ নিতে যাচ্ছে। শঙ্কা ও চ্যালেঞ্জের এই পরীক্ষায় পূর্ণ মার্ক পেতে সর্বোচ্চ পর্যায়ের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সাংবিধানিক এ সংস্থাটি। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা চলবে আউয়াল কমিশনের ফাইনাল পরীক্ষা। নির্বাচন কমিশন সংসদ ভোটের সার্বিক প্রস্তুতি নিলেও ব্যালট পেপার পাঠানো ও ভোটার উপস্থিতি নিয়ে চ্যালেঞ্জে রয়েছে। তবে কাজী হাবিবুল আউয়ালের দাবি অতীতের ন্যায় এবারও ভোটার উপস্থিতি ভালো হবে।

এদিকে, শনিবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন কমিশন। ভোটারদের আশ্বস্ত করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, গণতান্ত্রিক নির্বাচনের জন্য মানদণ্ড অনুসারে আমাদের আইন রয়েছে। ভোটাররা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারবে। কিন্তু আমরা যেভাবে বলি, সেভাবে নির্বাচন সবসময় শান্তিপূর্ণ হয় না। আমরা চাই, আমাদের নির্বাচন কেবল দেশীয়ভাবেই নয়, আন্তর্জাতিকভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে। সংসদ নির্বাচনে আট বিভাগের ৬৪ জেলায় ১০১টি গুরুত্বপূর্ণ সংসদীয় আসন ভোট উৎসব। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৮টি, বরিশালে ৬টি, চট্টগ্রামে ১৬টি, সিলেটে ৮টি, রাজশাহীতে ২০টি, ময়মনসিংহে ৮টি, খুলনায় ১১টি এবং রংপুরে ১৪টি আসন রয়েছে।

নির্বাচনী আইনানুযায়ী, ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে শেষ করতে হয় প্রচার-প্রচারণা। সেই নিয়ম মেনেই সারা দেশে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সব ধরনের প্রচার-প্রচারণার সমাপ্তি হয়েছে। শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় প্রচারণার সময় শেষ হয়েছে। প্রচারণায় কেউ আইন না মানলে ছয় মাসের জেল অথবা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে। কমিশন চাইলে শুনানি করে কারো প্রার্থিতাও বাতিল করতে পারে।

এদিকে,  জাতীয় সংসদে আসন সংখ্যা ৩০০ থাকলেও এবার ২৯৯ আসনে নির্বাচন হচ্ছে। নওগাঁ-২ আসনের এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর মৃত্যু হলে আইন অনুযায়ী আসনটির ভোট স্থগিত করে ইসি। এর ফলে ২৯৯ আসনে ভোটাররা জনপ্রতিনিধি নির্বাচনের সুযোগ পাবেন।