বিজয়ের মাসে পেনসিলভেনিয়ায় ‘বাংলাদেশ এভিনিউর’ নামফলক উন্মোচন


ওহাইও সংবাদ প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৭, ২০২৩, ১১:৪৫ অপরাহ্ণ /
বিজয়ের মাসে পেনসিলভেনিয়ায় ‘বাংলাদেশ এভিনিউর’ নামফলক উন্মোচন

মোহাম্মাদ ইসলাম (আরিফ), পেনসিলভেনিয়া : বিজয়ের মাসে আরেকটি অধ্যায় যুক্ত হলো পেনসিলভেনিয়ার ফিলাডেলফিয়া সিটি সংলগ্ন মিলবোর্ন বরোর একটি রাস্তার নাম ‘বাংলাদেশ এভিনিউ’ করার মধ্যদিয়ে।

গত ৩ ডিসেম্বর (রবিবার) প্রবাসীদের অংশগ্রহণ বিশেষ করে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং এলাকার বিশিষ্টজনদের পাশে নিয়ে মিলবোর্নের মেয়র মাহবুবুল আলম তৈয়ব সড়কের নামফলকটি উম্মোচন করেন। উল্লেখ্য, পেনসিলভেনিয়া রাজ্যর মিলবোর্ন সিটির ৫ জন কাউন্সিলম্যানের সকলেই বাংলাদেশি এবং ট্যাক্স কালেক্টর, ডেপুটি ট্যাক্স কালেক্টরও বাংলাদেশি অর্থাৎ মেয়রসহ পুরো প্রশাসনেই বাংলাদেশিরা।

সড়কটি উন্মোচন অনুষ্ঠানের পূর্বে মিলবোর্নের এই সড়কটির নাম ছিল সেলারস এভিনিউ। সড়কটি উন্মোচন পর তা পরিণত হলো ‘বাংলাদেশ এভিনিউ’ তে। এ আনন্দ উদযাপনের দৃশ্য পরিস্ফুট হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অংশগ্রহনকারী সকলের চোখে মুখে।

জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পি জলি দাসের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্যদিয়ে শুরু হওয়া আনুষ্ঠানে মেয়র মাহবুবুল আলম তৈয়ব সিটির সকল কাউন্সিলম্যানের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানান বহুজাতিক এ সমাজে বিজয়ের মাসে ‘বাংলাদেশ এভিনিউ’ উদ্বোধনের পথ সুগম করার জন্যে। তিনি সামনের দিনগুলোতেও এলাকাবাসীর সমর্থন অব্যাহত থাকবে বলে আশা পোষণ করেন। এ সময় পেনসিলভেনিয়া রাজ্যর গভর্নরের প্রতিনিধি হিসেবে রাজ্যর পলিসি অ্যান্ড প্ল্যানিং সেক্রেটারি আকবর হোসেন (তিনিও বাংলাদেশী আমেরিকান) মেয়র তৈয়বকে গভর্নরের পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মাননা স্মারক হস্তান্তরকালে বলেন, একটি রাস্তার নামকরণের মধ্যদিয়ে মূলত বহুজাতিক এ সমাজে আমরা আরো বড়কিছু করতে পারবো যদি ঐক্যবদ্ধ থাকতে পারি। এই সড়কের নামকরণের মধ্যদিয়ে সেই অভিযাত্রা শুরু হলো।

এছাড়া অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্টেট সিনেটর টিম কিয়ার্নি, আপার ডারবি সিটির মেয়র (নির্বাচিত) এডোয়ার্ড ব্রাউনন, স্টেট রিপ্রেজেনটেটিভ জিনা কারী প্রমুখ। এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আমিন রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের, বীর মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদকে উদ্বোধনী মঞ্চে আহবান করে বিশেভাবে সম্মান জানানো হয়।

অনুষ্ঠানের সময় বৃষ্টি হওয়া স্বত্ত্বেও বাংলাদেশীদের উপস্থিতি মনে হয়েছে একখন্ড বাংলাদেশ।
উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, ক্যালিফোর্নিয়া, মিশিগান স্টেটে আরো অন্তত ৬টি সড়কের নামকরণ হয়েছে বাংলাদেশের নামে।